বিয়ের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন: নায়িকা পরীমণি-রাজকে আইনি নোটিশ

লুৎফুর রহমান লুৎফুর রহমান

সম্পাদক ও সিইও, বায়ান্ন টিভি

প্রকাশিত: ১:০৬ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২২ 681 views
শেয়ার করুন

 

চিত্রনায়িকা পরীমণির সঙ্গে অভিনেতা শরীফুল রাজের বিয়ের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন কুমিল্লার এক আইনজীবী। বিয়ের প্রমাণ চেয়ে পরীমণি-রাজকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন তিনি। আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে জবাব না দিলে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলা হয়েছে নোটিশে। মঙ্গলবার রাতে কুমিল্লা জজ কোর্টের আইনজীবী জয়নাল আবেদীন মাযহারী পরীমণি ও রাজকে নোটিশ পাঠানোর বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে, পরীমনিকে কুমিল্লার আইনজীবী আইনি নোটিশ দেওয়ার বিষয়টি অনেকে ‘হাস্যকর’ বলে মন্তব্য করেছেন। অনেকে বলেছেন, ওই আইনজীবী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনায় আসতে এই পথ বেছে নিয়েছেন।

জয়নাল আবেদীন মাযহারী দাবি করেছেন, ২০১২ সালের ২৮ এপ্রিল নায়িকা পরীমণি যশোরের কেশবপুর এলাকার যুবক ফেরদৌস কবির সৌরভকে বিয়ে করেন। এক লাখ টাকা কাবিনে বিয়েটি নিবন্ধন হয় কেশবপুর শহরের অফিসপাড়ার পাবলিক ময়দান এলাকার ফাতেমা মঞ্জিলে পৌরসভার কাজী এম ইমরানের হোসেনের মাধ্যমে। সৌরভকে তালাক না দিয়েই পরীমণি গত ১৭ অক্টোবর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার শরীফুল রাজকে বিয়ে করেছেন।

মঙ্গলবার রাতে অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন মাযহারী বলেন, আমি রাজ ও পরীমণি দুজনকেই আইনি নোটিশ পাঠিয়েছি। আমি জানতে চেয়েছি, পরীমণি তার আগের বিয়েতে ডিভোর্স না দিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করেছেন কি-না। এছাড়া যখন সন্তানসম্ভবা তখন দ্বিতীয় বিয়ের কথা মিডিয়াতে প্রচার করেছেন এবং পরে আবার ঢাকঢোল পিটিয়ে বিয়ে করেছেন। সন্তানসম্ভবা হয়ে বিয়ে করে পরীমণি মুসলিম রীতিনীতি ভঙ্গ করেছেন।

তিনি আরো বলেন, পরীমনি চিত্রনায়িকা হওয়ায় তার অনেক ফলোয়ার আছে। তার এসব কর্মকাণ্ডে সমাজে, বিশেষ করে নতুন প্রজন্মের মধ্যে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। তাই নোটিশে বলেছি, আগের বিয়ের তালাকনামা ও সন্তানসম্ভবা হওয়ার বৈধ কাগজপত্র যদি তাদের কাছে থাকে তাহলে তা জনসম্মুখে আনতে। যদি তা না হয় এবং আগামী সাত কর্মদিবসে যদি নোটিশের জবাব না পাই, তাহলে আমি আইনগত পদক্ষেপ নেব।