আজ ১৪ই ফেব্রুয়ারি আজ বসন্তের শুরু আজ ভালােবাসার দিন

প্রকাশিত: ১২:০৬ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২১ 226 views
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

বাংলা বর্ষপঞ্জি পাল্টে গেছে গেলাে বছর থেকে। মাসের হিসেবে যােগ- বিয়ােগ হওয়ায় ফাগুন পিছিয়ে এসেছে একদিন। বর্ষপঞ্জির নতুন এ রূপে বসন্তের প্রথম দিনেই পড়ছে ভালােবাসা দিবস। বিশ্ব সংস্কৃতি থেকে ধার করা ভালােবাসা দিবস পালিত হয় গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডার অনুসারে ফেব্রুয়ারির ১৪ তারিখে। আর বাঙালির নিজস্ব বর্ষপঞ্জিতে ফাগুন থেকে শুরু হয় বসন্তের হিসেব, বসন্তের আগমনী দিন।

ফাগুনের আলাদা এক মাহাত্ম্য। বসন্তের রঙে রাঙানাে ফাগুনের প্রথম দিন ঢেউ তােলে তরুণ-তরুণীর প্রাণে প্রাণে পশ্চিমের হাওয়া থেকে উড়ে আসা ভালােবাসা দিবসও দোলা দেয় তাদের হৃদয়ে। রঙের ছড়াছড়িতে আঁকা সেই দুটো দিন গত বছর থেকে এক সুতােয় মিলেছে। ফাগুনের আগুনঝরা শিমুলের বন ভালােবাসার লাল গােলাপের পরশে যেনাে

ঝলমলে হয়ে উঠেছে আরাে । এতদিন ধরে অনেকের কাছে একটি সহজ হিসেব ছিলাে বসন্ত শুরুর পরের দিনটা হচ্ছে ভালোবাসা দিবস। কিংবা ভালোবাসা, দিবসের আগের দিনটিতেই বসন্তের শুরু। এখন তাদের হিসেবে কিছুটা তালগােল পাকিয়ে গেছে। দুটো মেতে উঠার উপলক্ষ্য হঠাৎ সঙ্কুচিত হয়ে একটিতে এসে মিলেছে। তবে যারা শুধু হিসাব জানেন তারা কিছুটা বিভ্রাটেও পড়েছেন। তারা বাংলা বর্ষপঞ্জির হিসেব রাখেন না, জানা আছে ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালােবাসা দিবস। অতএব এর আগের দিন ১৩ ফেব্রুয়ারিই ফাগুনের প্রথম দিন। তারা খেয়াল রাখেননি ক্যালেন্ডারের পাতায় কাটাকুটি হয়েছে।

বর্ষপঞ্জি পাল্টে যাওয়ার ঘটনাটি অবশ্য হঠাৎ করে ঘটেনি। গ্রেগরিয়ান বর্ষপঞ্জির সঙ্গে বাংলা বর্ষপঞ্জির তারিখগুলাের সমন্বয় করার উদ্দেশ্যে ২০১৫ সালে একটি কমিটি করা হয়। ওই কমিটি বাংলা বর্ষপঞ্জি সংশােধন করে মন্ত্রণালয়ে পাঠায়। তারপর সিদ্ধান্ত হয়

এটি বাস্তবায়নের। ২০১৯ সাল থেকেই কার্যকর হয় নতুন বর্ষপঞ্জি। বাংলা একাডেমি জানিয়েছে, নতুন বর্ষপঞ্জি অনুযায়ী বৈশাখ থেকে আশ্বিন- বছরের প্রথম ছয় মাস গণনা করা হবে ৩১ দিনে। কার্তিক, অগ্রহায়ণ, পৌষ, মাঘ ও চৈত্র- এই পাঁচ মাস গণনা করা হবে ৩০ দিনে। ফাল্গুন মাস গণনা করা হবে ২৯ দিনে। লিপইয়ারে ফাল্গুন মাস পূর্ণ হবে ৩০ দিনে। বৈশাখ, জ্যৈষ্ঠ, আষাঢ়, শ্রাবণ, ভাদ্র-এতদিন বছরের প্রথম এ পাঁচ মাস গণনা করা হত ৩১ দিনে। আশ্বিন, কার্তিক, অগ্রহায়ণ, পৌষ, মাঘ, ফাল্গুন ও চৈত্র- এই সাত মাস গণনা করা হত ৩০ দিনে। আর লিপ ইয়ার বা অধিবর্ষে ফাল্গুন মাস গণনা করা হতাে ৩১ দিনে। অর্থাৎ ফাল্গুন থেকে একটি দিন কেটে নিয়ে সেটা উপহার দেওয়া হয়েছে আশ্বিনকে।