জনপ্রত্যাশা পুরনে সিলেট-৬ আসনে নৌকার মনোনয়ন চান এলিম চৌধুরী

প্রকাশিত: ৯:০৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০২৩ 301 views
শেয়ার করুন

সিলেট-৬, বিয়ানীবাজার-গোলাপগঞ্জ নির্বাচনী আসন থেকে জনপ্রত্যাশা পুরনে নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন চান মঞ্জুর শাফি চৌধুরী (এলিম চৌধুরী)। তিনি গোলাপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য।

 

দেশের প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী শিল্পপতি এলিম চৌধুরী পারিবারিকভাবে রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান। তার বড় ভাই ফারুক চৌধুরী বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ট সহচর ছিলেন। অপর বড় ভাই ইকবাল আহমদ চৌধুরী আমৃত্যু গোলাপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

 

গতকাল রোববার সন্ধ্যায় বিয়ানীবাজার পৌরশহরের একটি অভিজাত রেষ্টুরেন্টের কনফারেন্স হলে বিয়ানীবাজার প্রেসক্লাবের মাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হন এলিম চৌধুরী।

 

মতবিনিময় সভায় মঞ্জুর শাফি চৌধুরী এলিম বলেন, আমি আমেরিকায় বেড়ে উঠেছি, সেখানে নিজ কর্মের পাশাপাশি আমার দেশের আলোকিত বিষয় গুলো উপস্থাপন করার চেষ্টা করেছি আমেরিকান কমিউনিটিতে। আর বাঙালি কমিউনিটির উন্নয়নে কাজ করেছি। দেশে এসেও ব্যবসার পাশাপাশি এই মাটি ও মানুষের উন্নয়নে কাজ করছি আত্মার তাগিদ থেকে। আমি বিশ্বাস করি স্ব স্ব অঞ্চলের প্রাকৃতিক ও ভৌগোলিক অবস্থা ভেদে উন্নয়নের সঠিক ক্ষেত্র নির্ণয় করে পরিকল্পিত ভাবে কাজ করলে সত্যিকার টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করা সম্ভব। সেক্ষেত্রে বিয়ানীবাজার গোলাপগঞ্জে মাটি ও মানুষের উন্নয়নে কাজ করতে হবে। এখানে পর্যটনের বিকাশ এবং কৃষি পণ্য উৎপাদন ও রপ্তানির ভালো সুযোগ রয়েছে। আর আমাদের নতুন প্রজন্মকে যুগোপযোগী উন্নত শিক্ষা, বিশেষ করে কারিগরি ও আইটি শিক্ষার সহজলভ্য সুযোগ করে দিতে হবে। তবেই কাঙ্ক্ষিত ও জনপ্রত্যাশিত এবং প্রকৃত অর্থে উন্নয়ন সাধিত হবে।

 

তিনি বলেন, বিয়ানীবাজার-গোলাপগঞ্জে অবকাঠামোগত কাংখিত উন্নয়ন হয়নি। বিশেষ করে রাস্তাঘাট ভাঙ্গাচুরা থাকায় মানুষ দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। মাননীয় নেত্রী আমাকে নৌকা প্রতীক মনোনয়ন দিলে আপনাদের ভালবাসা ও ভোটে আমি নির্বাচিত হতে পারবো ইনশাআল্লাহ। আর আমি এমপি নির্বাচিত হলে জনগনের এই দূর্দশা লাঘবে মানুষের কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করা হবে।

 

তিনি আরো বলেন, গোলাপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার মাত্র কয়েক মাসের মধ্যে সাধারণ মানুষ আমাকে গ্রহণ করেছে। আর এই সময়ের মধ্যে আমি মানুষের কাছে পৌছাঁতে পেরেছি। এই আসনের মানুষ পরিবর্তন চায়।
সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মানুষ কি চায়, তা বুঝতে হবে। এই জনপদের মানুষকে ভালোবাসা দিয়ে কাছে টানা যায়। বিয়ানীবাজার-গোলাপগঞ্জ নির্বাচনী আসনে কি কি সমস্যা আছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এলাকাভিত্তিক ভিন্ন ভিন্ন সমস্যা রয়েছে। এই সমস্যা চিহ্নিত করার উদ্যোগ নেয়া হবে। যে এলাকায় যেমন সমস্যা সেই এলাকায় তা দূর করতে অগ্রাধিকার দেয়া হবে।

 

মতবিনিময়কালে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মোহাম্মদ জাকির হোসেন, গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খায়রুল হক, গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খোরশেদ আলম চৌধুরী রিপন, সদস্য মহসিন মজনু, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও পৌর কাউন্সিলার রুহিন আহমদ খান, নবদ্বীপ পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক, অল ইউরোপীয়ান বাংলা প্রেসক্লাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট এনায়েত হোসেন সোহেল।

 

মতবিনিময় কালে বিয়ানীবাজার প্রেসক্লাবের সাবেক ও বর্তমান দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দ, প্রেসক্লাবের সদস্যবৃন্দ এবং কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।