ইন্ডিয়ার আগ্রায় অনুষ্ঠিত হলো ” ইন্দো-বাংলা-নেপাল আন্তর্জাতিক মিডিয়া কনকেলেভ”-২০২৩

তপু ঘোষাল তপু ঘোষাল

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ১০:২৪ পূর্বাহ্ণ, মে ২২, ২০২৩ 168 views
শেয়ার করুন

ভারতের উত্তর প্রদেশের ঐতিহ্যবাহী তাজমহল খ্যাত আগ্রা শহরে ফাইভ স্টার হোটেল ক্লাকস সিরাজের আন্তর্জাতিক হলরুমে ইন্দো-বাংলা-নেপাল আন্তর্জাতিক মিডিয়া কনকেলেভ-২০২৩ অনুষ্ঠিত হয় ।

১৭ই মে বুধবার এই আন্তর্জাতিক কনফারেন্সে বাংলাদেশ, ভারত ও নেপাল, থেকে প্রায় তিন শতাধিক সাংবাদিক যোগদান করেন। আন্তর্জাতিক এই কনফারেন্সের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন-প্রফেসর এস পি সিংহ বাঘিল এস্টেট মিনিস্টার অফ ল’ গভমেন্ট অব ইন্ডিয়া, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, যোগেন্দ্র উপাধ্যদয় মিনিস্টার অফ এডুকেশন ইউপি গভমেন্ট, শিব মনোহর পান্ডে প্রেসিডেন্ট ইউপি জার্নালি অ্যাসোসিয়েশন, রাজু লামা প্রেসিডেন্ট সার্ক জার্নালিস্ট ফোরাম, আব্দুর রহমান কেন্দ্রীয় সেক্রেটারি সার্ক জার্নালিস্ট ফোরাম, প্রফেসর স্মিতা মিশ্র এক্সিকিউটিভ মেম্বার সার্ক জার্নালিস্ট ফোরাম, অনুরুদ্ধ সুধাংশু প্রেসিডেন্ট সার্ক জার্নালিস্ট ফোরাম ইন্ডিয়া চ্যাপ্টার, সহ ভারতের বিভিন্ন রাজ্য থেকে আগত সাংবাদিক নেতা ও সদস্যবৃন্দ।

আন্তর্জাতিক এই কনফারেন্সে মিডিয়ার চ্যালেঞ্জ শীর্ষক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়।

সার্ক জার্নালিস্ট ফোরামের প্রেসিডেন্ট রাজু লামা বলেন, সাংবাদিকদের স্বাধীনতা এবং মিডিয়ার চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলায় সার্ক জার্নালিস্ট ফোরাম কাছে করে যাবেন।

সার্ক জার্নালিস্ট ফোরামের সেক্রেটারি জেনারেল মোঃ আব্দুর রহমান বলেন, সাংবাদিকদের স্বাধীনতা এবং মিডিয়ার চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলা করার জন্য সব সাংবাদিকদের একই ছাতার নিচে এসে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান।

ইন্ডিয়ান জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, আগ্রা প্রেসক্লাব ও সার্ক জার্নালিস্ট ফোরাম উত্তর প্রদেশ শাখা কর্তৃক আয়োজিত এই আন্তর্জাতিক কনফারেন্সে বাংলাদেশ থেকে সার্ক জার্নালিস্ট ফোরাম সেন্ট্রাল কমিটির সেক্রেটারি জেনারেল মোঃ আব্দুর রহমানের নেতৃত্বে, নাজমা সুলতানা নীলা, তপু ঘোষাল, লায়ন এ জেড মাইনুল ইসলাম, মোঃ মোস্তফা খান নাসির উদ্দিন আল মামুন, মজিদা খানম, বাবুল বিশ্বাস, আকাতার রহমান, আফছার আলী সরকার, মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক ও মোশারফ হোসেন যোগদান করেন।

উল্লেখ্য,গত ১০-১১ জানুয়ারি দিল্লিতে অনুষ্ঠিত হয়েছিল সার্ক আন্তর্জাতিক জার্নালিস্ট কনফারেন্স-২০২৩ তখন বাংলাদেশ থেকে চার সাংবাদিক অংশগ্রহণ করেছিলেন।