পাগলায় আগুনে ভস্মীভূত দুই দোকান,  চার লক্ষ টাকার ক্ষতি

প্রকাশিত: ৫:৪১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৬, ২০২৩ 395 views
শেয়ার করুন

শান্তিগঞ্জ উপজেলার পাগলা বাজার সংলগ্ন দেববাড়ির মোড় পয়েন্টে আগুনে ভস্মীভূত হয়েছে দুইটি দোকান। মঙ্গলবার দিবাগত রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করছেন দোকান মালিকরা। দু’টি দোকানের একটি টেইলারের দোকান ও একটি নকশা ঘর। নকশা ঘরের আংশিক ক্ষতি হলেও পুড়ে ছাই হয়ে গেছে সেন টেইলারের দোকানটি। এতে দুই দোকান মিলিয়ে ৪ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্তরা। ক্ষতিগ্রস্তরা হলেন- সেন টেইলার্সের স্বত্বাধিকারী সুরঞ্জিত সূত্রধর সেন ও লোকনাথ নকশা ঘরের স্বত্বাধিকারী নিকুঞ্জ সূত্রধর। এসময় দোকানগুলোতে থাকা সেলাই মেশিন, কাস্টমারদের জন্য তৈরি করা পোষাক, নতুন নতুন থান, রেডি-আনরেডি বিভিন্ন কাপড়, নগদ টাকা, আসবাবপত্র, কাঠসহ ডেকোরেশনের বিভিন্ন জিনিসপত্র পুড়ে ছাই হয়েছে।

সুরঞ্জিত সূত্রধর সেন জানান, প্রতিদিন তিনি দোকানেই ঘুমান। গরম ও পূজার (জন্মাষ্টমী) অনুষ্ঠানের কারণে তিনি দোকানে ফিরেন নি। রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে রিয়াজ নামের এক ব্যবসায়ী তাকে ফোন করে দোকানে আগুন লাগার খবর দেন। দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে শাটারের তালা ভেঙে সকলের সহযোগিতায় আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। এসময় ফায়ার সার্ভিসকে জানানো হলে তারাও চলে আসে। এর আগে স্থানীয়রা সবাই মিলে আগুনে কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আনে।

তিনি বলেন, আমার সব শেষ। দোকানে নতুন কাপড় তুলেছিলাম, চেচান স্কুলের শিক্ষার্থীদের কিছু ড্রেস, জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বানানো পোষাক, এক সপ্তাহ হয়নি কিছু নতুন কাপড় তুলেছিলাম দোকানে। নগদ ২০ হাজার টাকা, ৫টি আধুনিক সেলাই মেশিনসহ আমার সাড়ে তিন লাখ থেকে চার লক্ষ টাকা ক্ষতি হয়েছে। আমার সব শেষ। জমানো একটি ব্যবসা ছিলো আমার। আমি একেবারে নিঃস্ব হয়ে গেলাম। আমি এখন কী করবো। দু’একটা ব্যাংকের কিস্তিও আছে। কীভাবে কি করবো বুঝে উঠতে পারছি না।

নিকুঞ্জ সূত্রধর বলেন, এ মার্কেটে আমার ৪টি দোকান কোঠা আছে। আমরা নকশার কাজ করি। সেনের দোকান থেকে উপরের দিকে আগুন আমার একটি ঘরে প্রবেশ করে। এ ঘরে অনেক কাঠমাল ছিলো। কিছু নষ্ট হয়েছে। আমার ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৫০ হাজার হবে।

শান্তিগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার জিসান রহমান নাবিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, গভীর রাতে ফোন পেয়েই আমরা ঘটনাস্থলে ছুটে যাই। তখন রাত আনুমানিক ৩টা হবে। সেখানে গিয়ে আগুন সম্পূর্ণরূপে নির্বাপণ করি। সেন টেইলারের দোকানের সব কিছু পড়ে ছাই হয়ে গেছে। পাশের আরেকটি দোকানেও ক্ষতি হয়েছে। সব মিলিয়ে প্রায় ৪ লক্ষ টাকার ক্ষতি হতে হয়েছে। তবে, আগুন লাগার কারণ তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। তদন্ত করে তার পর বলা যাবে ঠিক কি কারণে আগুন লেগেছে।