টাওয়ার হামলেট কেয়ারার এসোসিয়েশনের একযূগ পূর্তি উদযাপন

প্রকাশিত: ৬:৫৩ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৮, ২০২২ 114 views
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

গত ৬ই ডিসেম্বর ২০২২ মঙ্গলবার টাওয়ার হামলেট কেয়ারার এসোসিয়েশন প্রতিষ্টার একযূগ পূর্তি উপলক্ষে পূর্ব লন্ডনের স্হানীয় রিজেন্ট ব্যাংকুয়েটিং হলে কেয়ার পেশায় গেল একযূগে বিশেষ ভূমিকার জন্য হেলথ কেয়ার ওয়ার্কারদের সম্মাননা প্রদান উপলক্ষ্যে এক জমকালো অনুষ্টানের আয়োজন করা হয়।

এসোসিয়েশনের সভাপতি নুরুল আলমের সভাপতিত্বে এবং লন্ডনস্হ জকিগন্জ ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্টের সেক্রেটারি মাওলানা আবদুল কুদ্দুসের পবিত্র কুরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে সূচিত পুরো অনুষ্টানটি পরিচালনা করেন চ্যানেল এস এর সিনিয়র সাংবাদিক ফারহান মাসুদ।

কেয়ার ওয়ার্কার ও কমিউনিটি নেতৃ বৃন্দের উপস্থিতিতে উক্ত অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বেথনালগ্রীন এন্ড বো সংসদীয় আসনের সম্মানিত এম পি রোসনারা আলী, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্তিত ছিলেন যথাক্রমে পপলার ও লাইম হাউস সংসদীয় আসনের সম্মানিত এম পি-আফসানা বেগম, টাওয়ার হামলেট লেবার পার্টোর লিডার কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম, টাওয়ার হামলেট কাউন্সিলের ক্যাবিনেট মেম্বার ফর সেফার কমিউনিটিজ ওহিদ আহমেদ, চ্যানেল এস ফাউন্ডার এবং কমিউনিটি ব্যাক্তিত্ব মাহী ফেরদৌস জলীল।
প্রধান অতিথি রোসনারা আলী এম পি তাঁর বক্তব্যে বলেন  কেয়ারারগণ বহুবিধ চ্যালেন্জ পরোয়া না করে বিভিন্ন ঝুকিতে থাকা কমিউনিটির মানুষের জীবন বাঁচাতে সহায়তা করে আসা ফ্রন্ট লাইন ওয়ার্কারদের এজন্য আজকের এ সম্মান প্রদান যথেস্ট নয়। তিনি কেন্দ্রীয় সরকারকে এই সেক্টরে ফান্ডিং বাড়ানোর আহবান জানান। তাছাড়া তিনি ত কেয়ারারদের পাশে সব সময় থাকার প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন।
আফসানা বেগম এম পি তাঁর বক্তব্যে বলেন, কেয়ারাররা নিজ চোখে আরেক মানুষের জীবন প্রদীপ নিভে যেতে দেখেও পিছপা হয়না, তাদের জীবনমান উন্নয়নে কেন্দ্রীয়-স্হানীয় সরকার যৌথভাবে কাজ করার আহবান জানান তাছাড়া তিনি কেয়ারারদের নূন্যতম বেতন প্রতি ঘন্টায় ১৫ পাউন্ডের দাবী জানান।

শুভেচ্ছা বক্তব্যে অংশগ্রহণ করেন-এসোসিয়েশ উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য শাহান আহমেদ চৌধুরী, জাগলুল হোসাইন খাঁন,লিটন আহমেদ , জাহেদ মিয়া, সফর উদ্দিন প্রমুখ।

সম্মানিত ব্যাক্তিত্ব ও কাউন্সিলরদের মধ্যে উপস্তিত ছিলেন-টাওয়ার হামলেট কাউন্সিল এর ডেপুটি মেয়র মায়ূম তালুকদার কাউন্সিলর লীলু মিয়া, কাউন্সিলর-সাবিনা খাঁন, কাউন্সিলর-রেবেকা সুলতানা,কাউন্সিলর-মাহিম তালুকদার, কাউন্সিলর জেমস কিং,কাউন্সিলর শুভ হোসাইন, কাউন্সিলর মনসুর আলী,কাউন্সিলর মুহাম্মাদ চৌধুরী,টাওয়ার হামলেট কাউন্সিলের সাবেক স্পীকারবৃন্দ-মিজান চৌধুরী, আহবাব হোসাইন, সাবিনা আক্তার।
ব্যারিস্টার আতাউর রহমান, মোসলেহ উদ্দিন আহমেদ,

কেয়ারিং সেবায় বিশেষ অবদানের জন্য সর্বমোট ২৮জন কেয়ার কর্মীকে পুরস্কৃত করা হয় যথাক্রমে-কেয়ারার ওমর ফারুক, তোফায়েল আহমেদ,জাহেদ মিয়া, আনা মিয়া, মাসুম আহমেদ ভূইয়া,আসাদুজ্জামান,মনসুর খাঁন,আব্দুল আহাদ,শাহ বদরুজ্জামান, দেলোয়ার হোসাইন, নুরুন্নেছা, আকিল চৌধুরী, ফওজিয়া আফরোজ,সাবিনা চৌধুরী, আলিমা বেগম, শামসুন্নাহার আহমেদ, দিলরুবা খাঁন, আছিয়া হোসাইন, ফৌজিয়া রহমান, আহাদ মিয়া মিস নুরজাহান, হামিদা বেগম এবং আবদুল কাদির।

কেয়ারিং এজেন্সির পক্ষে বক্তব্য রাখেন থ্রি সিসটারের, পিপলস কেয়ার এবং আপাসন-সার্ভিস ম্যানেজার মতিউর রহমান। অনুষ্টানে আগত সকল বক্তারাই কেয়ারিং পেশাকে জব না মনে করে এটিকে একটি মহৎ মানব সেবার সাথে তুলনা করেন যে কর্মটি মানুষের জীবন মৃত্যুর সাথে সম্পর্কিত।এটি একটি মানব সেবার শিল্পকর্ম এটি সচেতনতার সাথে সম্পাদন করতে হয়। তাই কেয়ার কর্মীদের যার যার অবস্হান থেকে সহযোগিতা করতে আহবান জানান।

পরিশেষে-টাওয়ার হামলেট কেয়ারার এসোসিয়েশন দীর্ঘ একযূগপূর্তিতে এর শুরু থেকে এপর্যন্ত যারা শ্রম দিয়েছেন তাদের সকলকে ধন্যবাদ জানান এসোসিয়েশনের বর্তমান কমিটি। অনুষ্টানের ডিনার পরিবর্তি একটি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্টান ও রাফেল ড্র হওয়ার কারণে আগত দর্শকদের মধ্যে ব্যাপক আনন্দ অনুভূত হয়।