সিলেটে নিজেদের অসহায়ত্বের কথা তুলে ধরতে  চালু হলো হিজরা টিভি, কাজ করবেন ট্রান্সজেন্ডারা

নিউজ ডেস্ক নিউজ ডেস্ক

বায়ান্ন টিভি

প্রকাশিত: ৭:০৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৬, ২০২১ 183 views
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সুমন ইসলাম -সিলেট প্রতিনিধি:

হিজড়া জনগোষ্ঠী বাংলাদেশের  মোট জনসংখ্যার একটি ক্ষুদ্র অংশ হলেও আবহমান কাল থেকে এ জনগোষ্ঠী অবহেলিত ও অনগ্রসর গোষ্ঠী হিসেবে পরিচিত। সমাজে বৈষম্যমূলক আচরণের শিকার এ জনগোষ্ঠীর পারিবারিক, আর্থসামাজিক, শিক্ষা ব্যবস্থা, বাসস্থান, স্বাস্থ্যগত উন্নয়ন এবং সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ সর্বোপরি তাদেরকে সমাজের মূল স্রোতধারায় এনে  সম্পৃক্ত করার বাস্তবসম্মত কোন কার্যক্রম নেই।

তাইতো তারা এলোমেলো  জীবনেই ছুটছেন,  আর এসব সমস্যার কথা তুলেধরার মাধ্যমও যেন তাদের জন্য সংকীর্ণ।
এসব কথা বিবেচনা করেই নিজেদের অসহায়ত্বের কথা তুলে ধরতে – ‌‘আমরা আমাদের কথা বলবথস্লোগানে সিলেটে গত বুধবার
সুরমা নদীর তীরের চাঁদনীঘাটে নিজেরাই তাদের এই ‘টিভিরথ উদ্বোধন করেন। টিভির চেয়ারম্যান রানী মুখার্জি।
 উদ্ভোধন করেই  পরবর্তীতে দেখা যায় নগরীর বেশ কিছু জায়গায় গিয়ে লাইভ করেন কারিশমা হিজরা।
লাইভে উপস্থাপনার দায়িত্বে থাকা কারিশমা হিজরার সাথে সকালের সময় থেকে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, তিনি আসলে কোন সাংবাদিক না মূলত নিজেদের বিভিন্ন নিপিড়ীনের কথা তুলে ধরতেই এই ডিজিটাল মাধ্যমে এসেছেন,  হিজরাদের জীবন কাহিনী কতটা নির্মম আর নিপিড়ী সেটা হিজরারাই জানে।
এসব যদি আমরা জনগণের কাছে তুলে ধরি তাহলে তারা বুঝতে পারবেন কেন আমরা রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে কালেকশন করি।
সাংবাদিক না হয়ে কেন টিভি নাম দিয়ে লাইভ করছেন এমন প্রশ্নে, কারিশমা জানান, তিনি হবিগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ থেকে এস এস সি ভোকেশনাল পাস করেছেন,  বৈশাখী টেলিভিশন এর তাসনুভা আনান শিশির”র যদি গণমাধ্যমে কাজ করতে পারেন তবে আমি কেন পারবো না, তবে আমি চাই সিলেটের সাংবাদিক ভাইয়েররা যদি আমাকে প্রশিক্ষণ এর ব্যাবস্থা করে দেন, তাহলে আমি ভবিষ্যৎ ভালো  অবস্থান এ যেতে পারবো  এবং হিজরাদের প্রতিনিধি হয়ে আমাদের  সব কিছু সমাজের কাছে তুলে ধরতে পারবো।
সিলেট হিজড়া টিভিথ চেয়ারম্যান ‘রানী মুখার্জি হিজড়াথ বলেন, হিজড়া সংস্কৃতি হলো দোকানে দোকানে ঘুরে টাকা সংগ্রহ করা। কিন্তু শাটডাউনে দোকানপটাট বন্ধ থাকায় আয় রোজগার একেবারে বন্ধ। ফলে খেয়ে না খেয়ে থাকতে হচ্ছে। বিকল্প আয়ের চিন্তা থেকেও এই টিভি করা হয়েছে।থ নিজেদের দুর্দশার কথা, সমাজের কথা তুলে ধরা হলো, আবার কিছু আয়ও হলো- যুক্ত করেন রানী।