আমিরাতে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মানে গোলটেবিল বৈঠক

আমিনুল হক আমিনুল হক

বায়ান্ন টিভি

প্রকাশিত: ১০:৩৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৮, ২০২৩ 99 views
শেয়ার করুন

সংযুক্ত আরব আমিরাতে বসবাসরত বাংলাদেশি গণমাধ্যমকর্মীদের আয়োজিত ‘স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রবাসীদের করণীয়’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত ৬ অক্টোবর শুক্রবার রাত ৮টায় দেরা দুবাইস্থ রেডিসন ব্লু হোটেলে কমিউনিটি নেতা আলহাজ্ব ইয়াকুব সৈনিকের সভাপতিত্বে ও সাংবাদিক মাহবুব হাসান হ্নদয় ও তিশা সেনের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথি ছিলেন আরব আমিরাতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ আবু জাফর। টেলিকনফারেন্সে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের কন্সুল্যেট জেনারেল দুবাইয়ের কনসাল জেনারেল বিএম জামাল হোসেন।

আমিরাতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ আবু জাফর বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে স্মার্ট নাগরিক তৈরি করতে হবে। কারণ স্মার্ট নাগরিক ছাড়া স্মার্ট বাংলাদেশ বাস্তবায়ন সম্ভব নয়। এক্ষেত্রে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, জ্ঞান-বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও যোগাযোগ ব্যবস্থাসহ সকল ক্ষেত্রে উন্নয়নের পাশাপাশি দেশে-বিদেশে নাগরিকদের স্মার্ট করে তুলতে হবে।তিনি বলেন, আমিরাতে থাকা জনতা ব্যাংকের ৪টি শাখা থেকে যারা ঋণ খেলাপি হয়ে বিলাস জীবন যাপন করছেন তাদের বিরুদ্ধে সরকার কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

তিনি আরো বলেন ১৯৮৫ সালে আরব আমিরাতে দক্ষ অদক্ষ শ্রমিকের যে রকম চাহিদা ছিল এখন আর সেইরকম চাহিদা নেই। দেশটি এখন অনেক উন্নত। তাদের এখন অদক্ষ শ্রমিকের প্রয়োজন নেই। তাই বাংলাদেশ থেকে দক্ষ শ্রমিকদেকে এই দেশটিতে আসার আহ্বান জানান।

কনফারেন্সে কনসাল জেনারেল বিএম জামাল হোসেন বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রবাসী গণমাধ্যম কর্মীদের আয়োজিত গোলটেবিলের আয়োজন সত্যি প্রশংসার দাবি রাখে। গণমাধ্যম কর্মীদের কর্তৃক আয়োজিত এরকম গোল টেবিল বৈঠক তেমন একটা দেখিনি। এটি একটি ভালো উদ্যোগ। এভাবে যদি বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকেও এই রকম উদ্যোগ গ্রহণ করে তবে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে অনেক সহায়ক হবে।

বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল দুবাইয়ের ভারপ্রাপ্ত কনসাল জেনারেল মোহাম্মদ আবদুস সালাম।

তিনি বলেন, দেশে প্রবাসিদের জীবনমান উন্নয়নে ১৫০টির বেশি টেকনিক্যাল প্রতিষ্ঠান স্থাপন করা হয়েছে। প্রবাসীদের বীমার আওতায় এনেছে সরকার। ১০ লাখ টাকা বীমায় পাচ্ছেন প্রবাসীরা।

বক্তব্য রাখেন কমিউনিটি নেতা আলহাজ্ব ইফতেখার হোসেন বাবুল, কনস্যুলেটর প্রেস কাউন্সিলর মোহাম্মদ আরিফুর রহমান, সিআইপি আয়ুব আলী বাবুল প্রমুখ।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম তালুকদার। সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক সিরাজুল হক, ফয়সাল সিদ্দিকী ববি, লুৎফুর রহমান, আবদুল মান্নান, সনজিত কুমার শীল, আমিনুল হক সহ অন্যান্য গণমাধ্যম কর্মীবৃন্দ।

আলোচনায় অংশ নেন মোহাম্মদ রাজা মল্লিক, সিআইপি শেখ ফরিদ আহমেদ, ইসমাঈল গণি চৌধুরী, সাইফুদ্দিন আহমদ, সেলিম উদ্দিন চৌধুরী, নাসির তালুকদার,সওকত আকবর, মোজাহের উল্লাহ মিয়া, সেলিম রেজা, নেসার রেজা খান,আবুল কাশেম, সিআইপি শিমুল মোস্তফা, মোহাম্মদ মনসুর সবুর, সহ বাংলাদেশি কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গগণ।

বক্তারা বলেন, এমন গোলটেবিল বারবার হলে দেশ এগিয়ে যাবে অদম্য গতিতে। সাধারণ প্রবাসিদের নানা সমস্যা লাঘব হবে এমন প্রত্যাশা বিশেষজ্ঞদের। সিআইপি শেখ ফরিদ আহমেদ বলেছেন, রেমিট্যান্স প্রেরণের ক্ষেত্রে সরকার ২.৫ % প্রণোদনা দেন। কিন্তু সরকার যদি এটাকে বৃদ্দি করে ৪% প্রণোদনা দেন তাহলে প্রবাসীরা বৈধ পথে রেমিটেন্স প্রেরণের ক্ষেত্রে আরও বেশি উৎসাহিত হবেন। মতপার্থক্য কখনো ভালো দিক না। তাই যে যেই সংগঠন করুক না কেন সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করা উচিত।