শিক্ষা, রাস্তাঘাটসহ উপজেলার সুষম উন্নয়ন করতে চান আবুল কালাম

প্রকাশিত: ২:০৮ পূর্বাহ্ণ, জুন ৪, ২০২৪ 24 views
শেয়ার করুন

সোমবার প্রচারণার শেষ দিনে উপজেলার পাগলা বাজার ও পাথারিয়া বাজারে শেষ জনসমাবেশ ও পৃথক মিছিল করেছেন মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী ও শান্তিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবুল কালাম ও তার সমর্থকেরা। সোমবার বিকাল ৪ টায় পশ্চিম পাগলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জগলুল হায়াদারের নেতৃত্বে উপজেলার পাগলা বাজারে বিশাল মিছিল করেন তারা। মিছিলটি শুরু হয় পাগলা সরকারি মডেল হাইস্কুল এন্ড কলেজের সামনের চত্ত্বর থেকে। এরপর পাগলা বাজারের প্রধান প্রধান গলি ও সুনামগঞ্জ-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়ক প্রদক্ষিণ করে হাইস্কুল এন্ড কলেজের সামনে এসে জড়ো হন কর্মী-সমর্থকেরা। এর আগে পশ্চিম পাগলা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা থেকে মিছিলে মিছিলে বাজারে এসে একত্রিত হন মিছিলকারীরা। প্রায় ঘন্টাব্যাপী চলে এ মিছিল।

অপরদিকে একই সময়ে উপজেলার পাথারিয়া বাজার এলাকায় শেষ জনসভা করেছেন আবুল কালাম। পাথারিয়া বাজারের জনসভায় উপস্থিত ছিলেন, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি রেজাউল করিম শামীম, করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক ফয়জুল হকসহ স্থানীয় অনেক নেতৃবৃন্দ। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বক্তারা বলেন, ‘আবুল কালাম একজন ভালো মানুষ। তার হাত ধরে আর যাই হোক অন্তত দুর্নীতি ও মানুষের ক্ষতি হবে না। তিনি একজন আপাদমস্তক রাজনৈতিক ব্যক্তি।

পাথারিয়ার জনসভায় আবুল কালামের পক্ষে বক্তব্য রাখছেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি করুণা সিন্ধু বাবুল।

নির্বাচনী বক্তব্যে আবুল কালাম বলেন, ‘আমি শান্তিগঞ্জ উপজেলাবাসীর পরীক্ষিত মানুষ। সব সময় মানুষের পাশে ছিলাম, এখনো আছি এবং ভবিষ্যতেও পাশে থাকবো। একবার মানুষ আমাকে চেয়ারম্যান হওয়ার সুযোগ দিয়েছিলেন। আমি মানুষের সেবায় কাজ করেছি। আবারও মানুষের সেবায় কাজ করতে চাই। আগামী ৫ জুনের নির্বাচনে আমাকে মোটরসাইকেল মার্কায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার অনুরোধ করছি। আমাকে যদি উপজেলাবাসী সুযোগ দেন তাহলে আমি সমস্ত উপজেলায় সমানভাবে উন্নয়ন করার চেষ্টা করবো।

শিক্ষা, চিকিৎসা ও রাস্তাঘাট নিয়ে কাজ করতে চাই। আমার উপজেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া অনেক উন্নয়ন কাজ হয়েছে। কিন্তু সেসব উন্নয়ন হয়েছে একপক্ষী, একটি স্থানকে কেন্দ্র করে। আমি নির্বাচিত হলে সমস্ত উপজেলায় সেই উন্নয়নের ছোঁয়া পৌঁছে দেবো। পরে আবুল কালামের উপস্থিতিতে পাথারিয়া বাজারেও একটি মিছিল করেন উপস্থিত কর্মী সমর্থকেরা।