৫২ টিভি’র উদ্যোগে প্রবাসীদের সমস্যা ও সম্ভাবনা বিষয়ক ‘প্রবাসীর প্রত্যাশা’

প্রকাশিত: ৩:২৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৩, ২০২৩ 412 views
শেয়ার করুন

শুক্রবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের শারজাহে বাংলাদেশ সমিতির বঙ্গবন্ধু হলে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল আমিরাত ভিত্তিক অনলাইন চ্যানেল ৫২ টিভি’র উদ্যোগে প্রবাসীদের সমস্যা ও সম্ভাবনা বিষয়ক একটি ভিন্নমাত্রিক আয়োজন ‘প্রবাসীর প্রত্যাশা’ শীর্ষক অনুষ্ঠানটি। এতে সভাপতিত্ব করেন বায়ান্ন টিভির এমডি সালেহ আহমদ। বার্তা সম্পাদক তিশা সেন ও সংবাদাঠিকা স্নিগ্ধা সরকার তিথির যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন দুবাইয়ের কনসাল জেনারেল বিএম জামাল হোসেন। রাত আনুমানিক দশটায় শুরু হয়ে উপস্থিত দর্শক ও অতিথিদের গভীর আগ্রহ ও ধৈর্যের বিন্দুমাত্র বিচ্যুতি না ঘটিয়ে অনুষ্ঠান চলে টানা রাত ১-৩০টা পর্যন্ত।

প্রধান অতিথির ভাষণে দুবাইয়ের কনসাল জেনারেল বিএম জামাল হোসেন বলেন- বর্তমানে ১৬৫ টি দেশে এক কোটি ৩০ লাখ প্রবাসী রয়েছেন। প্রবাসীদেরকে এন আই ডি কর্মসূচি আওতায় আনা সরকারের একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ।’ তিনি বলেন ‘আমরা প্রবাস বান্ধব কনসুলেট সৃষ্টির জন্য কাজ করছি। দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ঘাটতি কমানোর জন্য রেমিটেন্স প্রবাহ বৃদ্ধির জন্য আমরা কাজ করছি।ছয়টি আমিরাতের প্রত্যন্ত অঞ্চলে দুয়ারে কন্সুলেট যাচ্ছে।’ তিনি দুবাই কনসুলেটে সেবা প্রত্যাশীদের এই গ্রীস্মের মধ্যে যেন আর বেশিদিন কষ্ট করতে না হয় সেজন্য দ্রুত এসি ওয়েটিং লাউঞ্জ স্থাপনের আশ্বাস দেন।

আয়োজনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ইঞ্জিনিয়ার আবু জাফর চৌধুরী, বাংলাদেশ সমিতি শারজাহের সিনিয়র সহ সভাপতি ইসমাইল গনি, সিলেট বিভাগ উন্নয়ন পরিষদ আমিরাত শাখার সভাপতি হাজি আব্দুর রব এবং বিমান অফিসে কর্মরত ডানাটা কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক রেজা।

বায়ান্ন টিভির পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন ডিরেক্টর এম এ কুদ্দুস খাঁ মজনু, হাজি শফিকুল ইসলাম এবং রুজেল তরফদার। অনুষ্ঠানের তত্বাবধানে ছিলেন বায়ান্নের হেড অব নিউজ আমিনুল হক। সাংবাদিকদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন প্রবাসী সাংবাদিক সমিতির সভাপতি সাইফুল ইসলাম তালুকদার ও সিনিয়র সাংবাদিক জাহাঙ্গীর কবির বাপপি । এসময় প্রবাসিদের নানা সমস্যা নিয়ে দেশটির সাতটি প্রদেশের প্রবাসী ও সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকার থেকে নিবন্ধিত বাংলাদেশি সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। যথাক্রমে আবুধাবি প্রবাসী ফরহাদ হোসেন, বাংলাদেশ সমিতি দুবাইয়ের সাধারণ সম্পাদক নেসার রেজা খাঁন, সিনিয়র বিহেভিওর থেরাপিস্ট (অটিজম) ফারহানা নেসার খান, সিলেট বাসীর পক্ষে নজরুল ইসলাম ও দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, চট্টগ্রামবাসীর পক্ষে মাজহার উল্লাহ মিয়া ও আবুল কাশেম, বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিল ফুজাইরাহের জহির উদ্দিন, বাংলাদেশ বিজনেস ফোরামের সভাপতি কামাল হোসেন সুমন, বাংলাদেশ সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র উম্ম আল কুইয়েনের সভাপতি সবুজ হাসান। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ কনসুলেটের সদ্য বিদায়ী লেবার মিনিস্টার ফাতেমা জাহান কে সম্মাননা স্মারক তুলে দেয়া হয়।

এতে স্বাগত ভাষণে ৫২ টিভি’র সিইও এবং সম্পাদক লুৎফুর রহমান বলেন, ‘২০২০ সালে করোনা কালীন সময়ে যাত্রা শুরু করে মূল ধারার সংবাদমাধ্যমের পাশাপাশি সাংবাদিকতার মৌলিক নীতিতে আস্থাশীল হয়ে সত্য ও ন্যায়ের পথে অবিচল থেকে আমিরাত প্রবাসীদের মুখপাত্র হতে পেরেছে ৫২ টিভি। আপনাদের এ ভালবাসা আমরা ধরে রাখতে চাই।’

বিশেষ অতিথি প্রকৌশলী আবু জাফর চৌধুরী অনুষ্ঠানে আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন ‘বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হবে এমন কোন সংবাদ বায়ান্ন টিভি প্রচার করেনি এবং ভবিষ্যতেও করবে না।’ তিনি ৬৫ ঊর্ধ্ব প্রবাসীদের প্রবাসী কল্যাণ কার্ড দেয়া না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং এ ব্যাপারে কন্সুলেটের সহায়তা প্রত্যাশা করেন।

বিশেষ অতিথি প্রবাসী কমিউনিটি নেতা নওশের আলী খান আক্ষেপ করে বলেন,’ ৩০ বছরে দেখলাম না প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় বা অন্য কোন মন্ত্রণালয় কেবল প্রবাসীদের সুখ-দুঃখের কথা শুনতে এখানে এসেছেন যেখানে প্রবাসীরা তাদের সমস্যা ও প্রত্যাশার কথা বলতে পারতেন। ‘ তিনি বলেন,৩০০০ কোটি টাকার মতো অর্থ প্রবাসী কল্যাণ তহবিলে আছে, সেনা কল্যাণ সংস্থার মতো লাভজনক বিনিয়োগ করে এই বিশাল অংকের অর্থ প্রবাসীদের কল্যাণে ব্যবহার করা যেত। ‘

দুবাইয়ে নিযুক্ত বাংলাদেশের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর কামরুল হাসান বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখতে যেয়ে বলেন বর্তমানে আরব আমিরাতে বাংলাদেশ ৮৬৫ মিলিয়ন ডলার মূল্যের পণ্য এক্সপোর্ট হচ্ছে, তা শীঘ্রই বিলিয়ন ডলারে পৌঁছাবে বলে আমরা আশাবাদী।’ তিনি প্রবাসী ব্যবসায়ীদের একটি ডাটাবেজ তৈরির জন্য ব্যবসায়ী কমিউনিটির কাছে সহযোগিতা চান।

বাংলাদেশ মহিলা সমিতি দুবাইয়ের সভাপতি আবিদা হাসান সংবাদ পরিবেশনের পাশাপাশি বা ৫২ টিভি সামাজিক দায়বদ্ধতার কাজটিও করছে জেনে আমরা উৎসাহিত হয়েছি।

হাজী শফিকুল ইসলাম বলেন, যারা জনতা ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে পালিয়ে যান,তাদের চিহ্নিত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রয়োজন। এয়ারপোর্টে ব্রিফকেইস ভর্তি স্বর্ন নিয়ে কিছু লোক বসে থাকেন,যাত্রীদের নগদ অর্থ দিয়ে স্বর্নের বার ধরিয়ে দেন,এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।

এম এ কুদ্দুস খান মজনু বলেন ‘প্রবাসীরা হয়রানি শিকার হন আর তাতে তারা দেশে যাওয়ার আগ্রহই হারিয়ে ফেলেন।
নজরুল ইসলাম বলেন, এই গ্রীষ্মের তাপদাহের মধ্যে কন্সুলেটে আগত সেবাপ্রার্থী দর্শনার্থীদের দুর্ভোগে পড়তে হয়। এ ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া দরকার।

দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী বলেন,’বিকাশ,হুন্ডি বন্ধ হলে আমিরাত বাংলাদেশের এক নম্বর রেমিট্যান্স প্রেরণকারী দেশ হতে পারবে।’
দুবাই কন্সুলেটের লেবার কাউন্সিলর ফাতিমা জাহান তার কর্মকালীন সময়ে দুবাইয়ের প্রবাসী কমিউনিটি এবং সাংবাদকর্মীদের সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জানান।

মাজহার উল্লাহ মিয়া প্রবাসীদের জন্ম নিবন্ধন ও আইডি’র ভুল সংশোধনের ইস্যুটিকে অগ্রাধিকার দেয়ার জন্য কন্সাল জেনারেলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তিনি রেমিটেন্স কে উৎসাহিত করতে সরকারের কাছে প্রবাসীদের জন্য ৫ শতাংশ প্রণোদনা দাবি করেন।

বুলবুল আহমেদ মুকুল বলেন,দুবাইয়ে ২৫-৩০ হাজার দিরহাম বেতনের প্রলোভন দেখিয়ে কিছু ভুয়া কোম্পানি লোক নিয়োগ করে তাদের নামে লোন নিয়ে লোপাট করতে দেখা গেছে এদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে

আবুল কাশেম কমিউনিটি নেতাদের কথায় প্ররোচিত না হয়ে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করার জন্য বাংলা টিভির প্রতি আহ্বান জানিয়ে যেখানে দুর্নীতি ও হয়রানী সেখানেই সেখানে কলম ধরার জন্য সাংবাদিকদের প্রতি অনুরোধ জানান।

সাংবাদিক জাহাঙ্গীর কবীর বাপপি প্রবাসীদের সমস্যা সম্ভাবনা,অভাব অভিযোগ নিয়ে কথা বলার জন্য নিয়মিতভাবে দূতাবাস ও কন্সুলেটের উদ্যোগে ‘মিট দ্য প্রেস’ এর আয়োজন করা এবং প্রবাসী সংবাদকর্মীদের পেশাগত দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে নিরাপত্তা প্রদান এর বিষয় তুলে ধরেন। তিনি সেবা গ্রহণে আসা প্রান্তিক প্রবাসীদের প্রতি আরো সহানুভূতিশীল হওয়ার জন্য দূতাবাস ও কন্সুলেট কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।

সবুজ হাসান দাবি করেন সকল প্রবাসীর লাশ সরকার বিনামূল্যে পরিবহন করতে হবে। তিনি বলেন জনতা ব্যাংক যদি আমাদেরকে অ্যাপের মাধ্যমে টাকা প্রেরণের সুযোগ দিত তাহলে প্রবাসীরা উপকৃত হতেন। তিনি ব্যবসায় লোকসান দেওয়া প্রবাসীদের জন্য দেশ থেকে প্রয়োজনে জনতা ব্যাংকের মাধ্যমে ইউ এ ই তে টাকা আনার ব্যবস্থা থাকা প্রয়োজন বলেও উল্লেখ করেন।

আবুধাবি প্রবাসী ব্যবসায়ী ফরহাদ হুসাইন আমিরাতে বাংলাদেশিদের ভিসা বন্ধ থাকায় ব্যবসায়ীদের অসুবিধার কথা তুলে ধরেন এ ছাড়া বিমানের টিকেটের উচ্চ মূল্য হ্রাস, হুন্ডি ব্যবসায়ীদের পাসপোর্ট জব্দ করণ ,দালালদের খপ্পরে পড়ে আমিরাত প্রবাসে নারী কর্মীদের অনেকেই দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণের কারণ হচ্ছেন তাই প্রয়োজনে বাংলাদেশ থেকে নারী কর্মী আমদানি সংকুচিত করার আহ্বান জানান।

নেসার রেজা খান দুবাইয়ে বিগত ৪০ বছরেও একটি বাংলাদেশি কমিউনিটি স্কুল প্রতিষ্ঠিত না হওয়ায় আক্ষেপ প্রকাশ করেন।
কামাল হোসেন সুমন বলেন ‘প্রবাসীরা দীর্ঘ কর্মজীবন শেষে তাদের পুনর্বাসনের জন্য সরকারের স্পষ্ট নীতিমালা থাকতে হবে।’ তিনি একাধিকবার এম আর পি পাসপোর্ট ধারণকারীদের ই পাসপোর্ট করার সময় এস বি ক্লিয়ারেন্সের নামে অহেতুক হয়রানি বন্ধের দাবি জানান।