এনটিভি যখন খবর: মিডিয়া কর্মীরা ছিলেন সরব

আবুল হোসেন আবুল হোসেন

বিশেষ প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ৭:১৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৫, ২০২২ 111 views
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

গত সোমবার রাত দশটার পরে লন্ডনে এনটিভি ইউরোপের বিল্ডিংয়ে আগুন লেগেছে, এরকম একটি সংবাদ সোস্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক প্রচার পায়। সংবাদটি শুনে লন্ডনের সাংবাদিকরা ছুটে যান এনটিভি অফিসের বাহিরে। তখনো দাউ দাউ করে আগুনে জলছিলো এনটিভির পাশের বিল্ডিংটি। আর ফায়ার ফাইটারদের অব্যাহত প্রচেষ্টায় রক্ষা পেয়েছিলো এনটিভি বিল্ডিং। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বন্ধ রাখতে হয়েছিল এনটিভি ইউরোপ অফিস থেকে সম্প্রচার প্রায় বারো ঘণ্টা।

এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা নিয়ে অনেকেই অনেকভাবে সোস্যাল মিডিয়ায় তাঁদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন, সহানুভূতি ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন । সোশ্যাল মিডিয়ায় এ রকম একটি বক্তব্য আমার নজর কেড়েছে এতে লিখেছেন লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বর্ষীয়ান সাংবাদিক মোহাম্মদ আব্দুস সাত্তার। লেখাটি বায়ান্ন টিভির পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরলাম ।

আকস্মিক বিপর্যয় আর
সহমর্মিতার পরশে
স্পন্দিত একটি রাত
লন্ডনে এনটিভি ভবনে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে – এমন একটা খবর বাংলা মিডিয়ার কর্মীদের কাছে পৌঁছেছে সোমবার রাত ১০টার কিছু পর। সোয়া ১০টার দিকে আহাদ চৌধুরী বাবুর ফোন পেলাম। তাৎক্ষণিকভাবে সিদ্ধান্ত নিলাম ঘটনাস্থলে পৌঁছুতে হবে আমাদের। এনটিভিতে আমাদের সহকর্মীদের পাশে গিয়ে দাঁড়াতে হবে। সাংবাদিকতার পেশাগত দায়িত্ববোধ থেকে তো বটেই, মানবিকতারও দাবী সেটি। স্পট থেকেই জানতে হবে কেমন করে কী হলো। ইতিমধ্যে আনিছ ফোন দিলেন। স্বল্পতম সময়ের মধ্যে আনিছ এসে আমাকে পিক আপ করলেন।
পুলিশের কর্ডনের কারণে গাড়িযোগে স্পট পর্যন্ত যাওয়া গেলো না। গাড়ি রেখে হেঁটে গেলাম স্পটে। এনটিভির ডাইরেক্টর বাবু ভাই আর এনটিভিতে আমাদের সহকর্মী মামুন, রুহেল সহ কয়েকজন তখন সেখানে। আগুনের শিখা ততক্ষণে ফায়ার সার্ভিসের পানির তোড়ের কাছে পরাস্ত, কিন্তু বিপুল ধোঁয়ার সুউচ্চ কুন্ডলী আচ্ছন্ন করে রেখেছে কয়েকটি ভবন।


বাবু ভাই বিস্তারিত জানালেন। এনটিভি ভবনের একেবারে পাশের একটি লন্ড্রি শপে আগুনের সূত্রপাত রাত ৯.৫০-এ। দ্রুত তা ছড়িয়ে পড়ে, উঠে যায় অনেক উঁচুতে। ফায়ার সার্ভিস ছুটে আসে শিগগীরই। তাদের অন্তত ১৬টি অগ্ননির্বাপণ গাড়ি আগুন নিয়ন্ত্রেণর কাজে নেমে পড়ে। বাবু ভাই বললেন, আগুন তাঁদের ভবন স্পর্শ করেনি, কিন্তু বিপুল ধোঁয়ায় ঢেকে গেছে সে ভবন। সব নিয়ন্ত্রণে আসার পর বোঝা যাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ।
আল্লাহতায়ালার অসীম রহমত মানব সম্পদের ক্ষতি হয়নি। তবে সম্পদের ক্ষতি হয়েছে বিপুল। বাবু ভাই, মামুন, রুবেলসহ সবাই তাঁদের বিপদের খবরে স্বল্পতম সময়ের মধ্যে ঘটনাস্থলে ছুটে যাওয়ায় কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানালেন।
আমি ও আনিছ পৌঁছার কিছুক্ষনের মধ্যেই ছুটে এলেন আমাদের সকলের প্রিয় হান্নান, আহাদ চৌধুরী বাবু, সালেহ আহমদ, এম, এ, কাইউম ও ইমরান আহমদ। হান্নান তাৎক্ষণিকভাবে লাইভ রিপোর্টিং করে সবার কাছে পৌঁছে দিলেন তখন পর্যন্ত পাওয়া শেষ খবর। এনটিভির মামুনও আমাদের বক্তব্য নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে একটি রিপোর্ট তৈরী করলেন।
অনেক রাত পর্যন্ত সেখানে আমরা ছিলাম। এক পর্যায়ে পুলিশ তাদের কর্ডন আরও বিস্তৃত করে দিলে সবাই সরে আসি। অবশেষে হই ঘরমুখো।
আল্লাহর অসীম রহমতে এনটিভিতে আমাদের স্বজনেরা নিরাপদে আছেন, তবে আকস্মিক বিপর্যয়ের একটি মুহূর্তে পারষ্পরিক সহমর্মিতার পরশে স্পন্দিত এই একটি রাত আমাদের জানান দিয়ে গেলো আবারও, সংকটকালে যারা পাশে ছুটে যায় সব কাজ ফেলে রেখে, ভাইয়ের শিরোপা তাদের জন্যেই।
এনটিভিতে আমাদের ভাইয়েরা নিরাপদ রয়েছেন, এই রাতে এর বেশি কিছু চাওয়া আমাদের আর কী হতে পারে?
আলহামদুলিল্লাহ।