বুধবার শুরা বৈঠক, কে হচ্ছেন শফীর উত্তরসূরি?

প্রকাশিত: ১০:১২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৭, ২০২১ 175 views
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসা। দেশের কওমি অঙ্গনের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ। উম্মুল মাদারিস বা কওমি মাদরাসাগুলোর মা হিসেবে পরিচিত প্রতিষ্ঠানটিতে ৩৪ বছর ধরে মহাপরিচালক পদে ছিলেন আল্লামা শাহ আহমদ শফী। মৃত্যুর মাত্র একদিন আগে ছাত্রদের আন্দোলনের মুখে তিনি পদত্যাগ করেন। সেই থেকে মাদরাসাটির মহাপরিচালক পদে কাউকে নিয়োগ দেয়া হয়নি। শিক্ষকদের তিন সদস্যের একটি কমিটির মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে মাদরাসাটি।

এক বছর ধরে অনেকটা হেফাজতের প্রয়াত আমির জুনায়েদ বাবুনগরীর তত্ত্বাবধানে পরিচালিত হওয়ায় শফীর শূন্যতা তেমন অনুভব করা যায়নি। কিন্তু বাবুনগরীর মৃত্যুর পরই তার শূন্যপদে নিয়োগ, মহাপরিচালক নিয়োগ ও মাদরাসার নানা বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে প্রায় এক বছর পর বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) ডাকা হয়েছে শুরা বৈঠক।

সংশ্লিষ্টরা জানান, কওমি অঙ্গনের সম্মানিত এ পদে কে আসছেন তা নিয়ে ইতোমধ্যে তৈরি হয়েছে জল্পনা-কল্পনা। যদিও শুরা বৈঠকে মাদরাসায় মহাপরিচালক পদে নিয়োগ দেওয়া হবে কি-না এ বিষয়ে দুজন সদস্য দুই ধরনের বক্তব্য দিয়েছেন। একজন বলেছেন শুরা সদস্যরা প্রয়োজন মনে করলে মহাপরিচালক পদে নিয়োগ দেওয়া হবে। না হয় আগের তিন পরিচালকই মাদরাসা পরিচালনা করবেন। অন্য এক শুরা সদস্য নির্দিষ্ট করেই বলেছেন বুধবারের বৈঠকে মহাপরিচালক পদে নিয়োগ দেওয়া হবে। মাদরাসার একাধিক সূত্র জানিয়েছে, বুধবারের বৈঠকে মহাপরিচালক পদে নিয়োগ দেওয়া হতে পারে।

তারা জানিয়েছেন, হাটহাজারী মাদরাসা পরিচালনা পর্ষদে বর্তমানে বেশ কয়েকটি শূন্যপদ। এগুলো হলো- মহাপরিচালক, সহযোগী পরিচালক, সহকারী পরিচালক, শিক্ষা সচিব, শায়খুল হাদিস বা প্রধান শিক্ষক। জুনায়েদ বাবুনগরী ও নোমান ফয়েজীর মৃত্যুর পর মজলিসে শুরার দুটি পদও খালি রয়েছে। আলোচনা সাপেক্ষে এ পদগুলোতে নিয়োগ হতে পারে। তবে সবকিছু ছাপিয়ে মাদরাসাটির মহাপরিচালক পদে কে আসছেন তা নিয়ে কওমি অঙ্গনে চলছে জল্পনা-কল্পনা।

সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানায়, মহাপরিচালক পদে আলোচনায় রয়েছেন মাওলানা আবদুস সালাম চাটগামী, আল্লামা শেখ আহমদ, মাওলানা ইয়াহিয়া, মুফতি জসিম উদ্দিন, মাওলানা দিদার কাসেমী ও মাওলানা শোয়েব। এদের মধ্যে সবার প্রবীণ আলেম হিসেবে এগিয়ে রয়েছেন আবদুস সালাম চাটগামী। আবার শফীপন্থি ও প্রশাসনের সুনজরে রয়েছেন আল্লামা শেখ আহমদ। এছাড়া বাবুনগরীপন্থি ও বর্তমান হেফাজত নেতাদের সুনজরে রয়েছেন মাওলানা ইয়াহিয়া। যদি বড় ধরনের অঘটন না হয় তবে এ তিনজনের মধ্য থেকে মহাপরিচালক নিয়োগ হতে পারে বলে সূত্র জানায়।

হাটহাজারী মাদরাসার শুরা কমিটির সদস্য ও ফটিকছড়ির জামিয়া উবাইদিয়া নানুপুর মাদরাসার পরিচালক মাওলানা সালাহউদ্দিন নানুপুরী  বলেন, আগামীকাল (বুধবার) শুরা বৈঠকের দাওয়াত পেয়েছি। বৈঠকে মূলত জুনায়েদ বাবুনগরীর মৃত্যুতে যেসব পদ শূন্য হয়, সেগুলোতে নিয়োগ হবে। আলোচনা সাপেক্ষে মহাপরিচালক নিয়োগ দেওয়া হবে। এছাড়া মাদরাসার শিক্ষা, অর্থ ও পরিচালনা সংক্রান্ত বিষয়ে পর্যালোচনা করা হবে।

আরেক শুরা সদস্য ও ফতেপুর নছেরুল উলুম মাদরাসার মহাপরিচালক মাওলানা মাহমুদুল হাসান ফতেপুরী জাগো নিউজকে বলেন, বুধবার হাটহাজারী মাদরাসায় মহাপরিচালক পদে নিয়োগ দেওয়া হবে। এছাড়া মজলিসে শুরার দুটি শূন্যপদ ও অন্যান্য শূন্য পদে নিয়োগ দেওয়া হবে।

মহাপরিচালক পদে বিশেষ কাউকে নিয়োগে প্রশাসনের চাপ আছে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের মাদরাসায় শুরা সদস্যের পরামর্শ মোতাবেক আমরাই নিয়োগ দেবো। এক্ষেত্রে বিশেষ কাউকে নিয়োগে প্রশাসনের কোনো চাপ নেই। তারা এমনি আমাদের সার্বিক সহযোগিতা করবেন বলে জানিয়েছেন।

জানতে চাইলে চট্টগ্রাম জেলা বিশেষ শাখার (ডিএসবি) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) আবদুল্লাহ আল মাসুম জাগো নিউজকে বলেন, বুধবার হাটহাজারী মাদরাসায় শুরা বৈঠক হবে। আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মাদরাসায় মহাপরিচালক নিয়োগের ক্ষেত্রে পুলিশের কোনো নির্দেশনা আছে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। আমরা শুধু আইনশৃঙ্খলাজনিত বিষয়টি দেখবো।