সিলেটের বিয়ানীবাজারে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের পরিচয় পাওয়া গেছে

প্রকাশিত: ১:০২ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২, ২০২১ 151 views
শেয়ার করুন
  • 10
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    10
    Shares

সিলেট-বিয়ানীবাজার আঞ্চলিক মহাসড়কের জলঢুপ এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত মোটর সাইকেল আরোহী ব্যক্তি যুবক নয় তিনি একজন মধ্য বয়স্ক একজন স্কুল শিক্ষক। তার বাড়ি মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলার তারাদরম গ্রামে।

 

বুধবার রাত পৌনে ১০টার দিকে জলঢুপের ঝুঁকিপূর্ণ বাঁকে অজ্ঞাত যানবাহনের ধাক্কায় তিনি ঘটনাস্থলে মারা যান ।লাশের পাশে থাকা লাল রঙের মোটর সাইকেলটির রেজিস্ট্রেশন নং (সিলেট ল১১-৪৮৭০) গাড়ীটি ধুমড়ে মুচড়ে গেছে।

নিহত স্কুল শিক্ষক আইয়ুব আলী (৬২) খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলেন। তিনি বড়লেখা উপজেলার তারাদরম এলাকার মৃত আব্দুল মালিকের পুত্র। গোলাপগঞ্জ উপজেলার ভাদেশ্বর নাসির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ে তিনি শিক্ষক ছিলেন।

সড়কের উপর তাঁর লাশ প্রথমে দেখতে পান স্থানীয় খায়রুল আলম নামের এক যুবক। তিনি নিহতের স্বজনদের সাথে রাস্তায় পড়ে থাকা মোবাইল ফোনটির মাধ্যমে, যোগাযোগ করেন বলে ঘটনাস্থলে থাকা পুলিশ কর্মকর্তাকে জানান

নিহতের খবর পেয়ে বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের সুরতহাল সম্পন্ন করেছে। নিহতের মাথা ও মুখ পুরোটাই থেতলে গেছে। সড়কের উপর ছড়িয়ে রয়েছে মস্তিকের ক্ষতবিক্ষত অংশ।

সিলেটের বিয়ানীবাজার থানার উপপরিদর্শক, এসআই শাহ হিমেল বলেন, লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরী করে এ্যাম্বুল্যান্সে করে থানা নেয়া হয়েছে। আগামীকাল ময়না তদন্তের জন্য সিলেটের ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হবে। তিনি জানান, প্রথম লাশটি দেখেন খায়রুল আলম নামের স্থানীয় এক যুবক। লাশের কাছাকাছি আসার আগে তাকে দ্রুত গতিতে পাশ কাটিয়ে একটি পিকআপ ভ্যান চলে যায়।

 বিয়ানীবাজার থানার ওসি হিল্লোল বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে এসে লাশের পরিচয় শনাক্ত ও লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করি, লাশের অবস্থান ও দুর্ঘটনা কবলিত মোটর সাইকেলের অবস্থান সড়কের বাম পাশে রয়েছে। সে জন্য বলা যায় নিহত মাওলানা আইয়ুব আলী সড়কের সঠিক অবস্থানেই ছিলেন বলে ধারণা করা যাচ্ছে । এ ঘটনায় জড়িত সেই ঘাতক পিকআপ ভ্যান চালকে খুঁজে আইনের আওতায় আনা হবে।